KYC -এর পুরো নাম, অর্থ কি? – KYC Full Form in Bengali, KYC Meaning in Bengali

KYC -এর পুরো নাম, অর্থ কি? – KYC Full Form in Bengali, KYC Meaning in Bengali: প্রিয় পাঠকবৃন্দ, আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আপনারা জানতে পারবেন KYC-এর পুরো নাম, KYC কি?, KYC কেন করা হয়?, KYC প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য কি কি দরকার হয়?, KYC কোথায় করা যাবে? এবং সবশেষে KYC এর ব্যাপারে কিছু সাবধানতা অবলম্বন। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

KYC -এর পুরো নাম, অর্থ কি? - KYC Full Form in Bengali, KYC Meaning in Bengali

কোন ব্যাঙ্ক বা কোনও আর্থিক সংস্থায় অ্যাকাউন্ট খোলার জন্য কিছু নথি(Document) জমা দিতে হয়।  তারপরও আপনাকে আবার দেওয়া তথ্য যাচাই করার জন্য KYC করতে বলা হতে পারে। 

KYC-এর পুরো নাম হল Know Your Customer।  এর বাংলা অর্থ  ”আপনার গ্রাহককে জানুন” ।

KYC কি?

বর্তমানে অনলাইন পরিষেবা ব্যবহার করে এমন মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। এখন ঘরে বসেই আমরা বিভিন্ন ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট খুলি বা অন্য কোন আর্থিক সংস্থা পরিষেবা যেমন- বীমা, মিউচুয়াল ফান্ড, অনলাইন পেমেন্ট অ্যাপ যেমন- ফোন-পে, গুগল-পে, পে-টি-এম খুলে থাকি।

আপনি হয়তো নিশ্চয়ই দেখেছেন যে কোনো অ্যাকাউন্ট খোলার সময় কিছু ডকুমেন্ট চাওয়া হয়। কিন্তু যেসব ডকুমেন্ট জমা দেওয়া হয় , সেগুলো যদি  ভেরিফাই করা না হয় তাহলে বোঝা  যাবে না  কোন ইউজার ভুল ডকুমেন্ট দিচ্ছে  না জালিয়াতি করছে। এই বিষয়টির সমাধানের জন্য KYC -এর ব্যবস্থা করা হয়।

KYC কেন করা হয়?

যেকোন ব্যাঙ্ক বা আর্থিক সংস্থায় ভুল তথ্য দিয়েও জালিয়াতি অ্যাকাউন্ট খোলা হয় ।তাই এই সমস্ত ব্যাঙ্ক বা আর্থিক সংস্থা তার সমস্ত গ্রাহকদের জন্য KYC-এর প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে।  এই  KYC প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জালিয়াতি অ্যাকাউন্ট খুলে লেনদেন করা নিষিদ্ধ  হবে।

KYC প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য কি কি দরকার হয়?

KYC প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার জন্য ব্যবহারকারীকে একটি  ফর্মে তার নাম, ঠিকানা, ফটোর পাশাপাশি অন্যান্য শনাক্তকরণ সম্পর্কিত তথ্য দিতে হবে এবং সেইসাথে সম্পর্কিত নথিগুলিও(Documents)  দিতে হবে। KYC প্রক্রিয়া অফলাইন এবং অনলাইনে দুটি পদ্ধতিতেই করা যায়।

কেওয়াইসি প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণ করার জন্য আপনার যা যা  নথির প্রয়োজন হতে পারে তা হলঃ

  • আপনার ঠিকানা,
  • আধার কার্ড,
  • ভোটার আইডি,
  • প্যান কার্ড,
  • পাসপোর্ট,
  • ড্রাইভিং লাইসেন্স
  • ব্যাঙ্কের পাস বই(ফটোকপিসহ)  ইত্যাদি।

যদি আপনাকে কোনও পরিষেবা ব্যবহারের জন্য KYC করতে বলা হয়, তবে আপনাকে সেই পরিষেবাটিতে চাওয়া তথ্যের সাথে সম্পর্কিত অরজিনাল ডকুমেন্টগুলিও দেখাতে হবে।  এই অরজিনাল ডকুমেন্টগুলোর দ্বারা আপনার জমা দেওয়া নথি দ্বারা যাচাই করা হয়।  এইভাবে আপনার KYC প্রক্রিয়াটিকে সম্পন্ন করা হয়।

KYC কোথায় করা যাবে?

কেওয়াইসি-এর মাধ্যমেও অনেক সময় জালিয়াতি হয়। তাই আপনাকে  আপনার সংশ্লিষ্ট ব্যাঙ্ক বা আর্থিক কোম্পানির অফিস থেকে KYC করা উচিত।  অথবা আপনি অফিসিয়াল ওয়েবসাইটে KYC প্রক্রিয়া চেক করতে পারেন।

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ

বর্তমানে KYC এর নামে অনেকে প্রতারিত হচ্ছে। অতেব KYC করার ব্যাপারে আপনাকে সর্তক থাকতে হবে। কোন অজানা ফোন কল, ম্যাসেজ , ফেক কাস্টমার কেয়ার অথবা ফেক ওয়েবসাইট অনুযায়ী KYC থেকে দূরে থাকুন।  KYC সম্পন্ন করার জন্য পরিষেবা দ্বারা প্রদত্ত অফিসিয়াল পদ্ধতি অনুসরণ করা উচিত।

 

এছাড়া দেখুনঃ

RIP Full Form in Bengali – Rip পুরো নাম ও অর্থ বাংলায়

সি আই ডি (CID) এর পুরো নাম কি- CID Full Form in Bengali

সিবিআই(CBI) এর পুরো নাম কি?- What is the Full Form of CBI in Bengali?

Leave a Comment

Your email address will not be published.

x