{Final} Class 4 Bengali Model Activity Compilation Part 8

{Final} Class 4 Bengali Model Activity Compilation Part 8: Dear students of the 4th class in West Bengal, you can see the answers to the Model Activity Task part 4 here. As per the Education Board of West Bengal, this model activity task is the Final Model Activity Task and it will depend on whether you pass the next class.

{Final} Class 4 Bengali Model Activity Compilation Part 8

Class 4 Model Activity Compilation Part 8 subject Bengali full marks 40 question & answers available here. If you are a class 4 student and looking for a Final Exam Model Activity task, then this will be your best guidance.

বাংলা
চতুর্থ শ্রেণি
পূর্ণমান-৪০

১. একটি বাক্যে উত্তর দাও : ১X১০ =১০

১.১ সন্দেহ নাই মাত্র।– কোন্ বিষয়ে কবির মনে কোনাে সন্দেহ নেই?

উত্তর : পৃথিবীর প্রতিটি পাতায় যেসব শিক্ষণীয় বিষয় রয়েছে, সেগুলাে কবি একনিষ্ঠভাবে শিখছেন এবং এই বিষয়ে কবির কোনাে সন্দেহ নেই।

১.২ তেত্তো-চান স্কুলে গিয়ে ইয়াসুয়াকি-চানকে কোন্ অবস্থায় দেখতে পেল? সবাই বল্লে— ‘বেজায় মিঠে’!”— তাদের কাছে কোন্ কোন্ খাবার ‘বেজায় মিঠে’ লেগেছিল?

উত্তরঃ  তেত্তো-চান স্কুলে গিয়ে ইয়াসুয়াকি-চানকে ফুল গাছগুলোর পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অবস্থায় দেখতে পেল।

১ ৩ ”……………সবাই বললে ……’বেজায় মিঠে’ !”………

তাদের কাছে কোন খাবার বেজায় মিঠে লেগেছিল?

উত্তরঃ তাদের কাছে ধুলোবালির কোরমা-পোলাও আর কাদার পিঠে বেজায় মিঠে লেগেছিল।

১.৪ ‘বক সে চালাক অতি চিকিৎসক—চু।—‘চুঙু’ শব্দের অর্থ কী?

উত্তরঃ  চঞ্চু শব্দের অর্থ হলো ওস্তাদ বা দক্ষ।

১.৫ ‘মালগাড়ি’ কবিতায় কথক কার কাছে মালগাড়ি’ হওয়ার বর চাইবে?

উত্তরঃ  কথকের জন্মদিনে একটি মিষ্টি পরী যদি তাদের বাড়িতে আসে তাহলে কথক সেই পরীটির কাছে মালগাড়ি হওয়ার পর চাইবে।

১.৬ ‘সে ঘাের বনে মানুষের নামগন্ধ নেই, শুধু জানােয়ারের কিলিবিলি!’—কোন্ জঙ্গলের কথা বলা হয়েছে?

উত্তরঃ প্রমদারঞ্জন রায়ের লেখা যে জঙ্গলের কথা ‘বনের খবর’ গদ্যাংশে বলা হয়েছে তাহলো লুশাই বন।

১.৭ ইচ্ছা করে সেলেট ফেলে দিয়ে/ অমনি করে বেড়াই নিয়ে ফেরি।’—কথকের কী কী ফেরি নিয়ে বেড়াতে ইচ্ছে করে?

উত্তরঃ  কথকের চুড়ি,  চিনির পুতুল প্রভৃতি ফেরি নিয়ে বেড়াতে ইচ্ছে করে।

১.৮ ‘বােতাের দেখা পাওয়া নাকি সবসময়ই ভালাে’ ‘বােতাে’র পরিচয় দাও।

উত্তরঃ বোতো অনেকটা ডলফিন আকৃতির একটি প্রাণী এবং জলের গভীরে মস্ত প্রাসাদে বোতোর বসবাস । বোতো সম্পর্কে একটি প্রচলিত বিশ্বাসটি  হলো তিনি আমাজানের রক্ষা কর্তা।

১.৯ ‘ধলেশ্বরী খ্যাপা নদী। – একথা বলা হয়েছে কেন?

উত্তরঃ  ধলেশ্বরী নদীকে খ্যাপা নদী বলার কারণ এই নদী তালে বেতালে চলে এবং নদীর বেগ ও নদীর স্রোত প্রবল হওয়ায়  এদিক ওদিক থেকে ঢেউ এসে নৌকায় আছড়ে পড়ে।

১.১০ ‘মন উন্মন গাে।’ – কার মনের এমন পরিস্থিতি?

উত্তরঃ  সত্যেন্দ্রনাথ দত্তের লেখা দূরের পাল্লা কবিতায় ঘোমটা পরা এক গ্রাম্য বধূর মনের এমন পরিস্থিতির কথা বলা হয়েছে।

২. নিজের ভাষায় উত্তর দাও : ২X১০ = ২০

২.১ ‘নানান ভাবের নতুন জিনিস/ শিখছি দিবারাত্র।—‘সবার আমি ছাত্র’ কবিতায় কবি কীভাবে প্রকৃতি থেকে দিনরাত নানান ভাবের নতুন জিনিস শেখেন?

উত্তরঃ ‘সবার আমি ছাত্র’ কবিতায় কবি সুনির্মল বসু জীবনে চলার পথে প্রকৃতির বিভিন্ন উপাদান থেকে নানান অনুপ্রেরণা পেয়েছেন। আকাশের বিস্তৃতি কবিকে উদার হতে শিখিয়েছে ,
বাতাসের কাছ থেকে তিনি কর্মী হবার অনুপ্রেরণা পেয়েছেন। তিনি পাহাড় , সূর্য , সাগর , নদী , মাটি, পাথর , বনভূমি প্রত্যেকের কাছ থেকেই কিছু কিছু শিক্ষা লাভ করেছেন। কবির কাছে এই পৃথিবী পাঠশালাতুল্য এবং এখান থেকে তিনি দিনরাত নানান ভাবে নতুন জিনিস শেখেন।

২.২ ‘গাছে ওঠা ব্যাপারটা তাহলে এইরকম!–বকার অভিজ্ঞতার নিরিখে গাছে ওঠা ব্যাপারটা কীরকম?

উত্তরঃ  তেনে চান’ এর ‘অ্যাডভেঞ্চার’ গল্পে গাছে ওঠার ব্যাপারটা বড় অদ্ভুত।
পরিকল্পনা মতাে, তােত্তো-চান একটি সিঁড়ির মতাে মই গাছের গােড়ায় এনে লাগিয়েছিল এবং অনেক কষ্ট করে ইয়াসুয়াকি-চান মই এর মাথায় পৌঁছেছিল। ভাগ হওয়া ডালে দাড়িয়ে তােত্তো-চান মই এর মাথায় পেটের উপর ভর দিয়ে শােয়া ইয়াসুয়াকি-চানকে টেনে তুলে, অবশেষে
গাছের ডালে দুজনে মুখােমুখি দাঁড়াতে পেরেছিল। তােত্তো-চান ইয়াসুয়াকি-চানকে নিজের গাছে আমন্ত্রণ জানাল। ইয়াসুয়াকি-চান গাছের গায়ে পিঠ ঠেকিয়ে লাজুক ভাবে হেসেছিল।

 

২.৩ ‘আম-বাগিচার তলায় যেন তারা হেসেছে।’—একথা বলা হয়েছে কেন?

উত্তর : কবি ‘গােলাম মােস্তাফা’ রচিত ‘বনভােজন’ কবিতায় নুরু , আয়েশা ,সােফি , এরা বৈশাখ মাসের তপ্ত দুপুরে আমবাগানে বনভােজনের আয়ােজন করেছিল। নিস্পাপ এই শিশুরা খেলার ছলে নানান রকম রান্না করেছিল এবং তারা ওই খেলা খেলতে গিয়ে যে আনন্দ পেয়েছিল, সেই
আনন্দের উদ্দেশেই প্রদত্ত বিবৃতিটি করা হয়েছে।

২.৪ ‘মালগাড়ি কবিতায় কথকের ‘মালগাড়ি’ হতে চাওয়ার তিনটি কারণ নির্দেশ করাে।

উত্তর : ‘মালগাড়ি’ কবিতায় কবির মালগাড়ি হতে চাওয়ার তিনটি কারণ হল –
(i) মালগাড়ির চলার অত্যন্ত কম ,
(ii) মালগাড়ির দেরি হওয়া বা যাত্রী
ওঠানাে-নামানাে নিয়ে কোনাে দুশ্চিন্তা নেই।
(iii) মালগাড়িকে অনেক পথ অতিক্রম করতে হয়।

২.৫ ‘উবা আমার চোখের দৃষ্টি দেখে বুঝতে চায় …’—উবা কী বুঝতে চায়?

উত্তর : ‘অমরেন্দ্র চক্রবর্তী’- এর লেখা ‘আমাজনের জঙ্গলে গল্পে লেখকের চোখের দিকে তাকিয়ে উবা বুঝতে চায় যে , (i) লেখক কে?
(ii) তিনি কোথা থেকে এসেছেন ?
(ii) তিনি কোন পৃথিবীর মানুষ ?
(iv) সেই পৃথিবী টা কি রকম!
লেখকের চোখে উবা বহুদূর যেতে চায়।

২.৬ বর্শা দিয়ে বিধবে তারা, রাজ্যে আমার এলে। – কারা এমনটি করবে?

উত্তর : কবি কাজী নজরুল ইসলাম’ এর লেখা ‘আমি সাগর পাড়ি দেবাে কবিতায় হাঙ্গর,
তিমির মতাে জলদস্যুদের বর্শা দিয়ে বিধে ফেলার কথা বলা হয়েছে। জলদস্যুরা যদি তাদের রাজ্য আক্রমণ করে তাহলে , নৌসেনা সিন্ধু-গাজী এবং মােল্লা-মাজী, জেলেরা জলদস্যু এবং সমুদ্রের হিংস্র জন্তুদের বর্ষা দিয়ে বিধবে।

২.৭ যাত্রা শুরু হলাে সেই নির্দিষ্ট দেশের দিকে।’- ‘দক্ষিণমেরু অভিযান’ রচনাংশ অনুসরণে সেই অভিজ্ঞতার বিবরণ দাও।

উত্তরঃ  ‘নৃপেন্দ্রকৃষ্ণ চট্টোপাধ্যায়’ এর লেখা ‘দক্ষিণমেরু অভিযান’ গল্পে স্কট তার সহযাত্রীদের নিয়ে ১৯০২ সালের নভেম্বর মাসে ১৯টি কুকুর সঙ্গে নিয়ে স্লেজ গাড়িতে চেপে দক্ষিণ মেরুর দিকে যাত্রা করেন। পথে স্কট ও তার সাথীদের তীব্র তুষারঝড়ের মুখােমুখি হতে হয় এবং কোনােরকমে প্রাণ হাতে নিয়ে তারা কিং এডওয়ার্ড দ্বীপে ফিরে আসেন।

২.৮ ‘আলাে’ নাটকে বাদুড়দের গানের বক্তব্যটি কী?

উত্তর ; লীলা মজুমদার’ এর লেখা ‘আলাে’ নাটকে বাদুড়দের গানের বক্তব্যটি হল –
(i) তাদের গুহার মধ্যে সোঁদা গন্ধ এবং সেই গুহা বন্ধ।
(i) অন্ধকারে তারা সাদা দাঁত বের করে এবং কালাে ডানা মেলে বসে আছে , তারা আলাে সহ্য করতে পারেনা।

২.৯ ‘নৌকো পাড়ে লাগে। – তখন ভাইবােনেরা কী করে?

উত্তর : ‘ রানী চন্দ’ এর লেখা ‘আমার মায়ের বাপের বাড়ি গল্পে যখন নৌকো পাড়ে লাগে, তখন
ভাইবােনেরা নৌকো থেকে লাফিয়ে পড়ে। তারা নলখাগড়ার বনে এবং বালির চরে ছােটাছুটি করে, এছাড়াও গত রাতে রান্না করা লুচি, আলুরদম, হালুয়া ইত্যাদি জলের ধারে বসে খেয়ে হাত মুখ ধুয়ে আবার নৌকায় উঠে পড়ে।

২.১০ ‘দূরের পাল্লা’ কবিতায় নৌকো থেকে কোন্ দৃশ্য চোখে পড়ে?

উত্তর : ‘সত্যেন্দ্রনাথ দত্ত’- ‘-এর ‘দূরের পাল্লা’ কবিতায় দূরে যাত্রা করতে তিনজন মাল্লা নৌকা চালানাে শুরু করে। দিনের বেলা তাদের চোখে পড়ে নদীর পাড়ে জমে থাকা জঞ্জাল, নদীর জলে
গজিয়ে ওঠা ঝােপঝাড়, নদীর জল শৈবালে পরিপূর্ণ। নদীর চরে জেগে থাকা কঞ্চির বন, বান-হাঁস তার নিজের ডিম শেওলায় ঢেকে রাখে , পানকৌড়ি জলে ডুব দেয়, ঘােমটা পরা বউ নদীর পাড়ে দ্রুত স্নান সারে , ধীরভাবে চলতে থাকা নৌকা থেকে এইসব দৃশ্য চোখে পড়ে।

৩। নির্দেশ অনুসারে নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৩.১ নীচের বাক্যগুলি থেকে সন্ধিবদ্ধ পদ খুঁজে নিয়ে সন্ধি বিচ্ছেদ করাে : ১ X ৫ = ৫

৩.১.১ সমুদ্রের একটি নাম রত্নাকর।

উত্তরঃ রত্নাকর= রত্ন+আকর
৩.১.২ আমাদের বিদ্যালয় আমাদের গর্ব।

উত্তরঃ বিদ্যালয়= বিদ্যা+আলয়
৩.১.৩ তােমার দায়িত্ব সকলকে স্বাগত জানানাে।

উত্তরঃ স্বাগত= সু+আগত
৩.১.৪ ‘রমেশ’ শরৎচন্দ্র চট্যোপাধ্যায়ের একটি বিখ্যাত চরিত্র।

উত্তরঃ রমেশ= রমা+ঈশ
৩.১.৫ সকলের মতৈক্য হওয়া সম্ভব নয়।

উত্তরঃ মতৈক্য= মত+ঐক্য

৩.২ সন্ধি করাে : ১ X ৫ = ৫

৩.২.১ সুধী + ইন্দ্র = সুধীন্দ্র

৩. ২. ২ দাম + উদর=দামোদর
৩.২.৩ পূর্ণ + ইন্দু=পূর্ণেন্দু
৩.২.৪ দিবস + অন্ত = দিবসান্ত
৩.২.৫ বন + ওষধি = বনৌষধি

 

অন্যান্য ক্লাসের মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক এখানে ক্লিক করুন
এই ব্লগের হোমপেজে যাওয়ার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেল-এ যুক্ত হওয়ার জন্য
এখানে ক্লিক করুন

Leave a comment