CLASS VI Bengali(Group-A) / BENGALI (2ND SERIES) 2021 August Model Task Part 5

CLASS VI Bengali(Group-A) / BENGALI (2ND SERIES) 2021 August Model Task Part 5: Class 6 Model Activity Task Answers August Answers Part 5;

CLASS VI	Bengali(Group-A) / BENGALI (2ND SERIES) 2021 August Model Task Part 5

CLASS VI Bengali(Group-A) / BENGALI (2ND SERIES) 2021 August Model Task Part 5:

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক (আগস্ট)

শ্রেণীঃ  ষষ্ঠ

বিষয়ঃ  বাংলা

১. ‘ধান কাটার পর একেবারে আলাদা দৃশ্য।’- মরশুমের দিনে’ গদ্যাংশ অনুসরণে এই দৃশ্য বর্ণনা করাে।
উত্তর :সুভাষ মুখােপাধ্যায়ের মরশুমের দিনে’ গদ্যাংশে ধান কাটার পর শূন্য মাঠে যতদূর দেখা যায় মাঠ খাঁ খাঁ করে। মাটি রুক্ষ, কঙ্কালসার হয়ে পড়ে। আলগুলি জেগে থাকে বুকের হাড়-পাঁজরের মতাে। আকাশের রং তখন তামার হাঁড়ির মত। রােদের দিকে তাকানাে যায়না। গরুর গাড়ির চাকায়, মানুষের পায়ে মাটির ঢেলা গুলাে ভেঙ্গে গুড়াে গুড়াে হয়ে ধূলাে হয়ে যায়। সেই ধুলাে কখনাে ঘূর্ণি হাওয়ায়, দমকা বাতাসে উড়ে উড়ে দৃষ্টি আড়াল করে দেয়। ভােরবেলা যারা মাঠে গিয়েছিল, বেলা বাড়তেই তারা তাড়াতাড়ি ঘরে ফিরতে থাকে। নদী, পুকুর খাল, বিল শুকিয়ে যায়। গাছে পাতা থাকে না। নদী নালার ধার ছাড়া কোথাও ঘাসের ডগা পর্যন্ত দেখা যায় না। রাখাল বালক ছড়ি হাতে গাছের ছায়ায় বসে থাকে। জলের জন্য চারদিকে হাহাকার ওঠে।

 

২. দিন ও রাতের পটভূমিতে হাটের চিত্র ‘হাট’ কবিতায় কিভাবে বিবৃত হয়েছে তা আলােচনা করাে।
উত্তর : যতীন্দ্রনাথ সেনগুপ্তের হাট’ কবিতায় দিনের বেলায় অগণিত মানুষের কোলাহলে হাট ভরে যায়। নানা মানুষ যারা জিনিস বেচতে আসে এবং যারা জিনিস কিনতে আসে তাদের মধ্যে চলে দর কষাকষি এবং হাঁকাহাঁকি। যখন এক পারের মানুষ বিভিন্ন দ্রব্য নিয়ে হাটে আসে তখন তা কেনার জন্য অন্য পারের লােক ছুটে আসে। সারাদিন বেচাকেনা সেরে যারা লাভ করে তারা হাসতে হাসতে বাড়ি ফিরে যায়। এবং যাদের লােকসান হয় তারা দুঃখিত মনে বাড়ি ফেরে। এরপর দলছুট একটি কাকের ডাকে হাট অন্ধকার নেমে আসে। পাশ থেকে বয়ে আসা নদীর বাতাস হাটের পাশের পাকুড় গাছে লেগে শিহরণ জাগানাে শব্দ তােলে। দোচালাগুলি একে একে বন্ধ হয়ে যায়।

৩. মাটির ঘরে দেয়াল চিত্র’ রচনায় সাঁওতালি দেয়ালচিত্রের বিশিষ্টতা কিভাবে ফুটে উঠেছে?

উত্তর :তপন কর রচিত ‘মাটির ঘরে দেওয়াল চিত্র’ রচনায় মূলত জ্যামিতিক আকারে বিভিন্ন রঙের মাধ্যমে সাঁওতালি মহিলারা মাটির দেয়ালে বিভিন্ন রকমের চিত্র অঙ্কন করে থাকেন। পদ্মফুল, মােরগঝুঁটি, উদীয়মান সূর্য, তাসের ইস্কাবন, হরতন, সাধারণ লতাপাতা, পাখি, ময়ূর ইত্যাদি নকশা লাল, নীল, সাদা, গেরুয়া ইত্যাদি রঙের মাধ্যমে সুনিপুণতার সঙ্গে সাঁওতালি মহিলারা মাটির দেয়ালে ফুটিয়ে তােলেন।

৪. পিপড়ে কবিতায় পতঙ্গটির প্রতি কবির গভীর ভালােবাসার প্রকাশ ঘটেছে।-আলােচনা করাে।
উত্তর:কবি অমিয় চক্রবর্তী ‘পিঁপড়ে কবিতায় পিঁপড়েদের প্রতি তার গভীর সহানুভূতি প্রকাশ
করেছেন। তাদের ব্যস্ত চলন তাঁর কাছে মধুর বলেই মনে হয়। কবি চান ওদের নিজস্ব ভূবন আলাের গন্ধে ভরে থাকুক। এই নির্মল পৃথিবীতে ওদের যে একান্ত জীবন আছে সেখান থেকে কবি ওদের সরিয়ে দিতে চান না।

৫. ফাঁকি’ গল্পের অন্যতম প্রধান চরিত্র একটি নিরীহ নিরপরাধ আম গাছ।’-উদ্ধৃতিটি কতদুর সমর্থনযােগ্য?
উত্তর :রাজকিশাের পট্টনায়কের ফাঁকি গল্পের অন্যতম প্রধান চরিত্র হলাে একটি আম গাছ। এই আম গাছটিকে কেন্দ্র করে গােপাল, তার বাবা-মা, আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশী এবং পথচারীদের নানা অনুভূতি নিয়েই গল্পটি গড়ে উঠেছে। গাছটির চারা পোঁতা থেকে ফলন হওয়া পর্যন্ত সময়ে বাড়ির লােকজনদের পরিচর্যার অন্ত ছিল না। গাছটিকে তারা বাড়ির একজন সদস্য হিসাবে একাত্ম করে নিয়েছিল। কিন্তু যুদ্ধের সময় আমগাছটির গােড়া পর্যন্ত সুরঙ্গ খোঁড়া হলে গাছটি পূর্ব দিকে হেলে যায়। শেষে একদিন সমস্ত মায়া ত্যাগ করে গাছটি আষাঢ়ের ঝড়ে পড়ে যায়। এইভাবে আমগাছটি হয়ে উঠেছে এক দরদী সত্তার  আকারে ফাঁকি’ গল্পের অন্যতম প্রধান চরিত্র।

 

৬. পৃথিবী সবারই হােক’ -এই আশীর্বাণী ‘আশীর্বাদ’ গল্পে কিভাবে ধ্বনিত হয়েছে?
উত্তর :দক্ষিণারঞ্জন মিত্র মজুমদারের ‘আশীর্বাদ’ গল্পে প্রবল বর্ষায় একটি পিপড়ে একটি ঘাসপাতার নিচে আশ্রয় নেয়। পিপড়ে দুঃখের সঙ্গে জানিয়েছে সে সাঁতার কাটতে পারে, দৌড়াতে পারে, হাটতে জানে কিন্তু এসবের কোনটিই প্রবল বর্ষায় তার কাজে লাগে না। অন্যদিকে পাতা জানিয়েছে সে নড়তে চড়তে পারে না চলতেও পারে না। সে পিপড়াকে সান্ত্বনা দিয়ে বলে ‘পৃথিবী তােমার হবে’। ঘাসপাতার এই কথায় পিপড়ে আবেগে বলে ওঠে ‘পৃথিবী সবারই হােক’।

৭. ‘ছােট গাড়ির মধ্যে যতটা আরাম করে বসা যায় বসেছি।-এর পরবর্তী ঘটনাক্রম ‘এক ভুতুড়ে কান্ড গল্প অনুসরণে লেখ।
উত্তর :শিবরাম চক্রবর্তীর ‘এক ভূতুড়ে কান্ড’ গল্পে গাড়ির মধ্যে বসার পর লেখক এর গলা দিয়ে আর কথা বের হল না! ভয়ে শীতের দিনেও তিনি ঘামতে লাগলেন। হাতের আঙ্গুল গুলাে সব অবশ হয়ে যাচ্ছিল। কারণ তিনি দেখলেন গাড়ির ড্রাইভার এর জায়গায় কেউ বসে নেই। ঘন্টা দুয়েক পরে গাড়িটি যখন এক লেভেল ক্রসিংয়ের মুখে এসে পৌঁছাল তখন তাঁর হুঁশ ফিরল। দ্রুত গতিতে ধেয়ে আসা একটি ট্রেনের চাকায় চাপা পড়ে নিশ্চিত মৃত্যুর হাত থেকে বাঁচার জন্য তিনি গাড়ি থেকে নেমে পড়লেন। তারপর গাড়িটিও থেমে যায় এবং গাড়ির পিছন থেকে চশমা পরিহিত এক ভদ্রলােক লেখককে অনুরােধ করলেন তাঁর গাড়িটিকে যেন তিনি একটু ঠেলে দেন। কারণ গাড়িটির যন্ত্রপাতি আট মাইল দূর থেকেই বিগড়ে গেছে এবং সেখান থেকে তিনি একাই গাড়িটিকে ঠেলে ঠেলে আনছেন।

৮. ‘এক যে ছিল ছােট্ট হলুদ বাঘ’ -‘বাঘ’ কবিতা অনুসরণে তার কীর্তিকলাপের পরিচয় দাও।
উত্তর :একটি ছােট্ট হলুদ বাঘ তার বাবা ও মায়ের উপর একদিন খুব রেগে গিয়েছিল কারণ তারা
আস্তানা করেছে পাখিরালয়ে যেখানে খাওয়ার জন্য ছাগল, হরিণ বা ভেড়ার চিহ্নমাত্র ছিল না। ছােট্ট হলুদ বাঘ খিদের জ্বালায় পাখির ছানা ধরতে যায় কিন্তু তারা নিমেষের মধ্যে আকাশপথে নিরুদ্দেশ হয়ে যায়। এরপর ছােট্ট হলুদ বাঘ যায় নদীর ধারে কাঁকড়া ধরতে। কিন্তু কাঁকড়া তার দাঁড়া দিয়ে বাঘের থাবায় কামড় বসায়। এরপর সে যায় কাদার মধ্যে মেনি মাছ ধরতে। কিন্তু তার মা তাকে মনে করিয়ে দেয় সে হচ্ছে বাঘকোন ভোঁদড় অর্থাৎ বিড়াল নয়।

এছাড়া দেখোঃ

2021 Activity Task II (August) Class 6 English Part 5 Answers

Class VI Model Activity Task History (August- II) Part 5 Answers

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

x