Class V Bengali August, 2021 Model Task Part 5 Answer

Class V Bengali August, 2021 Model Task Part 5 Answer: Model activity task class 5 bengali part 5, class V  bengali model activity task new august 2021 2nd Series. Class 5 Math 2nd Series Model Activity Task 2021.

 

Class V Bengali August, 2021 Model Task Part 5 Answer

Class V Bengali August, 2021 Model Task Part 5 Answer:

মডেল অ্যাক্টিভিটি টাস্ক (আগস্ট)

শ্রেণি: পঞ্চম

বিষয়: ইতিহাস

 

নিচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

 

১. ‘মাঠ মানে ছুট’ কবিতায় কবির কাছে মাঠ কীভাবে নানান অর্থে প্রতিভাসিত হয়েছে আলােচনা করাে।

উত্তরঃ- কবি কার্তিক ঘােষের কাছে, মাঠ মানে ছুটি পাওয়ার মজা, সঙ্গে খুশির লুটোপুটি।
কবির কাছে, মাঠ হল্লা ও হাঁসির জায়গা। মন হারানাে বাঁশির সুরে এই মাঠ কবির ঘুম
ছুটিয়ে দেয়। নিকেল করা বিকেলের নাচনা পায়ের তাধিন ধিন বাজনা, কবি মনে সবুজ
প্রাণের শাশ্বত এক দীপ জ্বালিয়ে দেয়। সর্বোপরি মাঠ হলাে কবির এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা।

2. ‘অবশেষে দীর্ঘ যাত্রা শেষে তারা ভগবানের প্রাসাদে পৌঁছল। তারপর কী ঘটল, তা ‘পাহাড়িয়া বর্ষার সুরে’ রচনা অনুসরণে লেখাে।

উ: উত্তরঃ বৃষ্টি এনে পৃথিবীকে বাঁচাতে ব্যাঙ, মৌমাছি, মােরগ ও বাঘ দীর্ঘ যাত্রা শেষে ভগবানের প্রাসাদে পৌঁছালো, সেখানে গিয়ে তারা দেখল সবাই নানান ভােজ ও আনন্দ-উৎসবে ব্যস্ত। তাদের স্ত্রী ও মন্ত্রীদেরও মহানন্দ। ব্যাঙ  বুঝতে পারল কেন রাজ্যে এত অভাব, এত কষ্ট। রাগে উত্তেজিত হয়ে তারা গেল ভগবানের কাছে। অবশেষে ভগবান তার মন্ত্রীদের ডাকল এবং তাদের গাফিলতির জন্য তিরস্কার করল। এরপর তাদের জয়ের জন্য গর্বিত ব্যাঙ তখনই উল্লসিত হয়ে সরবে পুকুরে ফিরে গেল। তারপর থেকে যখনই ব্যাঙ ডাকে, তখনই বৃষ্টি নামে।

৩. ‘ঝড়’ কবিতা অনুসরণে শিশুটির ঝড় দেখার অভিজ্ঞতার বিবরণ দাও।

উ: মৈত্রেয়ী দেবীর “ঝড়” কবিতায় সেদিন ঝড় দেখে শিশুটির ভারী ভালাে লাগলাে। দুপুরবেলা মাঠে খেলতে খেলতে হঠাৎ আকাশে মেঘ উঠলাে। দেখতে দেখতে বকুলতলা, চাঁপাবন, দিঘির জল সবই কালাে হয়ে উঠল। শিশুটির মনে হলাে, সে যেমন দস্যিপনা করে ঘরের মেঝের উপর কালি ঢেলে দেয়, ঝড়ও যেনাে কোন দস্যি ছেলের মতাে আকাশের উপর কালি ঢেলে দিয়েছে।

৪. মধু কাটতে তিনজন লোক চাই। — এই তিনজন লােকের কথা ‘মধু আনতে বাঘের মুখে’ রচনাংশে কীভাবে উপস্থাপিত হয়েছে?

উ:  শিবশঙ্কর মিত্রের “মধু আনতে বাঘের মুখে” গল্পে উদ্ধৃত প্রসঙ্গটি রয়েছে। মধু
কাটতে তিনজন লােকের আলাদা আলাদা কাজ রয়েছে। প্রথম জনের কাজ- চট মুড়ি দিয়ে
গাছে উঠে কাস্তে দিয়ে মৌচাক কাটা। দ্বিতীয় জনের কাজ একটা লম্বা কাঁচা বাঁশের মাথায়
মশাল জ্বেলে ধোঁয়া দিয়ে মৌমাছিকে তাড়ানাে। আর তৃতীয় জনের কাজ একটা বড় ধামা হাতে
নিয়ে চাকের নিচে দাঁড়ানাে। গল্পে এই তিনজনের কথা এভাবেই উপস্থাপিত হয়েছে।

৫. ‘মায়াতরু’ কবিতার নামকরণের সার্থকতা প্রতিপন্ন করাে।

উ:  কবি অশােকবিজয় রাহা ‘মায়াতরু’ কবিতায় একটি আজব গাছের বর্ণনা দিয়েছেন। সন্ধ্যা হলেই গাছটি যেন দুহাত তুলে ভুতের মতাে নাচ শুরু করতাে। আবার রাতের আকাশে চাঁদের আলাে ছড়িয়ে পড়লে, গাছটি অনেকটা ভালুকের মতাে ঘার ফুলিয়ে গড়গড় শব্দ করতাে। পরক্ষনেই যখন গাছের মাথায় বৃষ্টি পড়ত তখন গাছের পাতা এমনভাবে কাঁপত, মনে হতাে যেনাে গাছের কাঁপুনি দিয়ে জ্বর এসেছে। আসলে কবি তার কল্পনায় গাছটিকে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন ভাবে পর্যবেক্ষণ করেছেন। সকালের সােনাঝরা রােদ, রাতের অন্ধকার, পূর্ণিমার আলাে আর বর্ষার বৃষ্টি- এই সবের মাঝে কবি গাছটিকে দেখেছেন। প্রত্যেক বরই গাছটি তার ভিন্ন
ভিন্ন মায়াবী রূপ নিয়ে হাজির হয়েছে। তাই কবিতাটির নামকরণ স্বার্থক।

৬. এই তাে সুবুদ্ধি হয়েছে তােমার।’— বক্তা কে? কাকে সে একথা বলেছে? কীভাবে তার সুবুদ্ধি হয়েছে ?

উত্তরঃ বীরু চট্টোপাধ্যায়ের ‘ফণীমনসা ও বনের পরি” নামক নাটকে প্রশ্নে উদ্ধৃত উক্তিটির বক্তা হলো বনের পরি।
*সে ফণীমনসাকে একথা বলেছে।
* ফণীমনসা তার ইচ্ছা অনুসারে বনের পরির কাছে কখনাে সােনার পাতা, তাে কখনাে কাচের পাতা আবার কখনাে পালং শাকের মতাে সবুজ পাতাও প্রার্থনা করে। এই সব পাতাগুলােই ফণীমনসা হারিয়ে ফেলে ডাকাত দল, বড় বা ছাগলের কাছে। শেষ পর্যন্ত সে নিজের জন্মগত কাঁটাভরা ছুঁচোলো পাতাই শ্রেয় বলে মনে করে। এই ভাবে তার সুবুদ্ধি হয়।

৭. ‘তারি সঙ্গে মনে পড়ে ছেলেবেলার গান’- কেমন দিনে কথকের ছেলেবেলার কোন্ গানটি মনে পড়ে ?

উ: বিশ্ব কবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের “বৃষ্টি পড়ে, টাপুর টুপুর” কবিতা অনুসারে বৃষ্টির দিনে কথকের ছেলেবেলার যে গানটি মনে পড়ে সেটি হল – “বৃষ্টি পড়ে টাপুর টুপুর, নদেয় এলাে বান”।

৮. ‘বােকা কুমিরের কথা’ গল্পে কুমিরের বােকামির পরিচয় কীভাবে ফুটে উঠেছে ?

উ: উপেন্দ্রকিশাের রায়চৌধুরীর ‘বােকা কুমিরের কথা’ গল্পে শিয়াল আর কুমির মিলে চাষ
করার সিদ্ধান্ত নেয়। এরা একে একে আলু, ধান ও আখের চাষ করে। কুমির শিয়ালকে
ঠকাবার জন্য আলু গাছের আগার দিক নিয়ে নিজেই ঠকে গেল। এরপর যখন ধান চাষ
করল, কুমির এবার গােড়ার দিক দাবি করলাে। সে ভেবেছিল মাটির নীচে হয়তাে ধান
ফলে। সে এবারও ঠকলাে। আর কিছুতেই ঠকা যাবে না, এই ভেবে কুমির, আগেভাগেই
আখ গাছের আগার দিকটা কেটে বাড়িতে এনে চিবিয়ে দেখে, শুধু নােনতা, তাতে একটুও
মিষ্টি নেই। এইসব ঘটনার মাধ্যমে কুমিরের বােকামির কথা গল্পে ফুটে উঠেছে।

এছাড়া দেখোঃ

Class 5 Model Activity Task(August-II) Health and Physical Education Part 5

Part 5 [2ND SERIES] Class V Amader Paribesh 2021 Model Activity Task

Class V Mathematics 2021 Model Activity Task Part 5 [2ND SERIES]

Class V Model Activity Task Subject English Part 5 [2ND SERIES]

 

Leave a Comment

Your email address will not be published.

x