বাংলা ব্যাকরণ(Bengali Grammar) প্রশ্ন ও উত্তর | পদ প্রকরণ

বাংলা ব্যাকরণ(Bengali Grammar) প্রশ্ন ও উত্তর

প্রল পদ কাকে বলে?
উঃ। বিভক্তিযুক্ত শব্দকে পদ বলে। যেমন— রাম বিদ্যালয়ে যাইতেছে।।
প্র। বিভক্তি কাকে বলে?
উঃ। যে সব চিহ্ন শব্দের সাথে জুড়ে পদ গঠিত হয় তাদের বিভক্তি বলে। যেমন—
অ (০), এ – কে— এর— র য় ইত্যাদি।
প্রঃশব্দ ও পদের পার্থক্য কি?
উঃ। অর্থযুক্ত বর্ণসমষ্টিকে শব্দ বলে। বিভক্তিযুক্ত শব্দকে পদ বলে।
প্রঃ} পদ কত প্রকারের? কি কি?
উঃ। পদ পাঁচ প্রকার। (১) বিশেষ্য, (২) বিশেষণ, (৩) সর্বনাম, (৪) অব্যয়, (৫) ক্রিয়া।
প্রঃ। বিশেষ্য পদ কাকে বলে?
উঃ। যে পদের দ্বারা কোন কিছুর নাম বােঝায় তাকে বিশেষ্য পদ বলে।
প্রে। বিশেষণ পদ কাকে বলে?
উঃ। যে পদ বিশেষ্য পদের দোষ, গুণ, অবস্থা, সংখ্যা, পরিমাণ প্রভৃতি বােঝায় তাকে বিশেষণ পদ বলে।
প্রঃ সর্বনাম পদ কাকে বলে?
উঃ। বিশেষ্য পদের পরিবর্তে যে পদ ব্যবহৃত হয় তাকে সর্বনাম পদ বলে।
প্রঃ অব্যয় কাকে বলে?
উঃ। যে পদের বিভক্তি, বচন ও লিঙ্গভেদে অথবা কোন অবস্থাতেই কোন পরিবর্তন হয় না তাকে অব্যয় পদ বলে।
প্রঃ/ ক্রিয়াপদ কাকে বলে?
উঃ। যে পদের দ্বারা কোন কিছু করা, হওয়া, থাকা ইত্যাদি কাজ বােঝায় তাকে ক্রিয়াপদ। বলে।
প্রঃ ক্রিয়াপদ ক’ রকমের? কি কি?
উঃ। ক্রিয়াপদ দু’ রকমের – (১) সমাপিকা ক্রিয়া (২) অসমাপিকা ক্রিয়া।
প্রঃ। সমাপিকা ক্রিয়া কাকে বলে?
উঃ যে ক্রিয়াপদ দ্বারা বাক্যের অর্থ সম্পূর্ণরূপে প্রকাশ পায় তাকে সমাপিকা ক্রিয়া বলে।
প্ৰ। অসমাপিকা ক্রিয়া কাকে বলে?
উঃ। যে ক্রিয়াপদ বাক্যের অর্থ সম্পূর্ণরূপে প্রকাশ করতে পারে না, বাক্যের অর্থ সম্পূর্ণ করার জন্য সমাপিকা ক্রিয়ার প্রয়ােজন হয় – তাকে অসমাপিকা ক্রিয়া বলে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.

x